কি খেলে ধাতু রোগ ভালো হয় - ক্ষয় রোগের ঔষধের নাম

আপনি নিশ্চয় কি খেলে ধাতু রোগ ভালো হয় জানতে চাচ্ছেন? হ্যাঁ আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন আজকের এই পর্বের মাধ্যমে আলোচনা করা হবেকি খেলে ধাতু রোগ ভালো হয় সেই সম্পর্কে। আপনাদের যাদের ধাতুর সমস্যা রয়েছে তা এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে চলুন এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক কি খেলে ধাতু রোগ ভালো হয় সেই সম্পর্কে।
কি খেলে ধাতু রোগ ভালো হয়

অনেকেই রয়েছে যারা ধাতুর রোগে ভুগে থাকেন। আপনার যদি ধাতুর রোগ বা ধাতুর সমস্যা হয়ে থাকে তবে এই পর্বটি আপনার জন্য। এই পর্বের মাধ্যমে জানতে পারবেন ধাতুর রোগ হলে কোন খাবার খেতে হবে এবং কোন ধরনের ওষুধ সেবন করতে হবে। তাহলে চলুন আজকের এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক কি খেলে ধাতু রোগ ভালো হয়।

ক্ষয় রোগের ঔষধের নাম

আপনি যদি ক্ষয় রোগের ঔষধের নাম সম্পর্কে জানতে চান তবে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। এই পর্বের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন ধাতুর ক্ষয় রোগের সকল ঔষধের নাম সম্পর্কে। তাহলে চলুন আজকের এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক ক্ষয় রোগের ঔষধের নাম। প্রতিনিয়ত সকালে খালি পেটে মধুর সাথে দুই চামচ আমলার রস খেলে শরীরে ধাতুর পরিমাণ খুব শীঘ্রই বৃদ্ধি পায়। আবার আমলকির রস দুধের সাথে পান করলেও ধাতুর রোগের নিরাময় হয়।
তিন থেকে চার গ্রাম তুলসির বীজ মিশ্রির দানের সাথে মিশিয়ে রোজ একবার খেলে এই রোগের দ্রুত উপশম পাওয়া যায়। আপনি যদি ক্ষয় রোগের জন্য ওষুধ সেবন করতে চান তবে আপনি FLUOFIN এই ওষুধটি সেবন করতে পারেন। এই ওষুধ সেবনের ফলে আপনার ক্ষয় রোগের সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

কি খেলে ধাতু রোগ ভালো হয়

আপনি যদি কি খেলে ধাতু রোগ ভালো হয় ঔষধ এর নাম জানতে চান তবে এই পর্বটি আপনার জন্য। এই পর্বটি সম্পূর্ণ মনোযোগ সহকারে পড়ার মাধ্যমে আপনি কি খেলে ধাতু রোগ ভালো হয় ওষুধ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক ধাতু ক্ষয় রোগের হোমিও ঔষধ ও কি খেলে ধাতু রোগ ভালো হয়। ধাতু ক্ষয় রোগের হোমিও ঔষধ অধিক কার্যকরী। এসিড ফস 1X খেলে ভালো উপকার পাবেন। হোমিও অশ্বগন্ধা Q এর এই রোগের কার্যকরী একটি ঔষধ। এর পাশাপাশি আপনি ঘরোয়া ভাবে পুষ্টিকর খাবার খেতে পারেন এবং প্রতিদিন সকালে দুই কোয়া রসুন খেতে পারেন। তবে আপনি যদি হোমিও ওষুধ খেতে চান তবে উপরোক্ত এই দুই ওষুধটি আপনি সেবন করতে পারেন। তবে ওষুধগুলো সেবন করার পূর্বে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী সেবন করবেন।

ধাতু রোগের গাছ গাছরা ওষুধ

আপনি নিশ্চয়ই ধাতু রোগের গাছ গাছরা ওষুধ সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন। আপনি যদি ধাতুর রোগের ওষুধ সম্পর্কে জানতে চান তবে এই পর্বটি আপনার জন্য। চলুন আজকের এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক ধাতু রোগের গাছ গাছরা ওষুধ। নিমপাতা প্রতিদিন সকালে 15 থেকে 20 টি নিমপাতা পরিষ্কার করে চিবিয়ে খেলে এ রোগের জন্য অনেক উপকার পাওয়া যাই। ডাবের পানি সাথে ফিটকিরি একটি ডাবের ভিতরে অল্প একটু ফিটকিরির দানা রাতে ভিজিয়ে রেখে সকালে খালি পেটে ও বিকেলে সেবন করলে ১০ থেকে ১৫ দিন এর মধ্যে উপকার পাওয়া যায়।
আতব চাউল রাতে এক গ্লাস পানিতে ভিজিয়ে রেখে সকালে খালি পেটে চিবিয়ে পানিসহ খেলে এই রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। তুলসী বীজ প্রতিদিন আধা গ্রাম পরিমাণ তুলসি বীজ সকালে বাসি পেটে চিবিয়ে খান তাহলে এ রোগ থেকে দ্রুত নিরাময় পাওয়া যাবে।

ধাতু ক্ষয়ের সিরাপ

ধাতু ক্ষয়ের সিরাপ সম্পর্কে জানতে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। চলুন আজকের এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক ধাতু ক্ষয়ের সিরাপ সম্পর্কে বিস্তারিত। অনেকের রয়েছে ধাতু ক্ষয়ের সমস্যা। আপনার যদি ধাতু ক্ষয়ের  সমস্যা থেকে থাকে তবে দুশ্চিন্তার কিছু নেই। কিছুদিন নিয়মিত ঔষধ সেবনের ফলে আপনার কাঙ্খিত সমস্যার সমাধান পেতে পারেন। আপনি যদি ধাতু ক্ষয়ের সিরাপ খেতে চান তবে ডামিয়া সিরাপ অথবা জানরাইড সিরাপ খেতে পারেন। এই দুটি সিরাপ খাওয়ার মাধ্যমে আপনার ধাতু ক্ষয়ের সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে। তবে এই সিরাপ দুটি খাওয়ার পূর্বে অবশ্যই কোন ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী খেতে হবে। কেননা হুট করে কোন ওষুধ সেবন করা উচিত নয়। আর ধাতু ক্ষয়ের সমস্যার সমাধানের জন্য এই দুটি সিরাপ সবথেকে ভালো।

ধাতু রোগ কেন হয়

আপনি কি জানেন ধাতু রোগ কেন হয়? ধাতুর রোগ কেন হয় জানতে হলে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। চলুন এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক ধাতু রোগ কেন হয়। ইন্টারন্যাশনাল ক্লাসিফিকেশন অফ ডিজেসেস(ICD-10) অনুসারে ধাতুর দোষ হচ্ছে একটি স্নায়ু-বৈকাল্য বা নিউরোটিক ডিজডার(কোড এফ৪৮,৮) এবং একটি সাংস্কৃতি-নির্দিষ্ট বেকার(পরিশিষ্ট২) যা বীর্য নির্গমনের জন্য হওয়া দুর্বলতা সাম্প্রতিক অযৌক্তিক উদ্যোগের কারণে তৈরি হয় এই ধাতুর রোগ। তবে আরো বিভিন্ন কারণে ধাতুর রোগ হতে পারে। আপনার যদি ধাতুর রোগ হয়ে থাকে তবে দুশ্চিন্তার কিছু নেই। নিয়মিত কিছুদিন চিকিৎসা নেওয়ার ফলে এই সমস্যার সমাধান হতে পারে।

ধাতু ক্ষয় রোগের বনাজি ঔষধ

ধাতু ক্ষয় রোগের বনাজি ঔষধ সম্পর্কে জানতে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে চলুন আজকের এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক ধাতু ক্ষয় রোগের বনাজি ঔষধ সম্পর্কে।নিমপাতা প্রতিদিন সকালে 15 থেকে 20 টি নিমপাতা পরিষ্কার করে চিবিয়ে খেলে এ রোগের জন্য অনেক উপকার পাওয়া যাই। ডাবের পানি সাথে ফিটকিরি একটি ডাবের ভিতরে অল্প একটু ফিটকিরির দানা রাতে ভিজিয়ে রেখে সকালে খালি পেটে ও বিকেলে সেবন করলে ১০ থেকে ১৫ দিন এর মধ্যে উপকার পাওয়া যায়। আতব চাউল রাতে এক গ্লাস পানিতে ভিজিয়ে রেখে সকালে খালি পেটে চিবিয়ে পানিসহ খেলে এই রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। তুলসী বীজ প্রতিদিন আধা গ্রাম পরিমাণ তুলসি বীজ সকালে বাসি পেটে চিবিয়ে খান তাহলে এ রোগ থেকে দ্রুত নিরাময় পাওয়া যাবে।

ধাতু ক্ষয় রোগের হামদার্দ ঔষধ

আপনি নিশ্চয়ই ধাতু ক্ষয় রোগের হামদার্দ ঔষধ সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন? তাহলে চলুন আজকের এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক ধাতু ক্ষয় রোগের হামদার্দ ঔষধ সম্পর্কে বিস্তারিত। নিচে কিছু ধাতু ক্ষয় রোগের হামদার্দের ঔষধ এর নাম দেওয়া হলঃ
  1. নারভেন্ট
  2. নিউটোন
  3. নিশাত
  4. লিবিডেক্স
  5. এন্ডডিরেক্স
এই পাঁচটি হামদার্দ ঔষধ হলো ধাতু ক্ষয় রোগে কার্যকরী কিছু ঔষধ। এই ঔষধ গুলো সেবন করলে আপনি খুব দ্রুত ধাতু ক্ষয় রোগ থেকে মুক্তি লাভ করবেন।

শেষ কথা

উপরোক্ত আলোচনা সাপেক্ষে এতক্ষণে নিশ্চয় কি খেলে ধাতু রোগ ভালো হয় - ক্ষয় রোগের ঔষধের নাম জানতে পেরেছেন। আপনার যদি এই পর্বটি সম্পর্কে কোন মতামত থেকে থাকে তবে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন এবং আজকের পর্বটি যদি আপনার ভালো লেগে থাকে তবে অবশ্যই বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন। এ ধরনের পোস্ট আরো পেতে আমাদের সাথেই থাকুন ধন্যবাদ।


পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url