ত্বকের যত্নে লেবুর রস কিভাবে ব্যবহার করতে হয়

খাবারের স্বাদ বাড়াতে সাহায্য করে এই লেবুর রস। শুধু যে খাবার স্বাদ বাড়ায় তা কিন্তু নয়। বরং এটি আমাদের বিভিন্ন রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সাহায্য করে। তাইলে অন্যান্য খাবারের তুলনায় আমাদের কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ।


এছাড়াও লেবু আমাদের শরীরের বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করার পাশাপাশি, ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা ও দূর করতে পারে। লেবুতে থাকা উপাদানগুলো আমাদের ত্বকের সৌন্দর্য আরো বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। আজকে আমরা জানব ত্বকের যত্নে লেবুর রস কিভাবে ব্যবহার করতে হয় এসব বিষয়।

ত্বকের যত্নে লেবু কিভাবে উপকারীঃ

লেবুর যেমন আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারে তেমনি এটি ত্বকের উজ্জ্বলতাও বাড়াতে পারে। লেবু আমাদের ত্বকের যত্নে অনেক সাহায্য করে। এমনকি এই লেবু ত্বকে ব্যবহারের পর অনেকেই এর ফল পেয়েছে। 

আবার অনেকেই এই উপকারিতা গুলো সম্পর্কে জানেন না। লেবুর রস ত্বকের কালো দাগ দূর করতে অনেক সাহায্য করে। লেবুর অন্যান্য গুণের থেকে এই গুনটি অনেক কার্যকরী।  তাইলে লেবুর এসব উপকারিতা সম্পর্কে জানা প্রয়োজন। যেন এগুলো ব্যবহার করে উপকারিতা গুলো পাওয়া যায়।

লেবুতে থাকা ভিটামিন সি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও এসিটিক উপাদান আমাদের ত্বক ভালো রাখতে সাহায্য করে। এগুলো বিভিন্ন ধরনের খারাপ ব্যাকটেরিয়া গুলো থেকে ত্বককে রক্ষা করে। আর এটা থাকা যে অ্যাসিটিক উপাদানগুলো রয়েছে এগুলো ত্বকের বিভিন্ন ধরনের কালো দাগ যেমনঃ ব্রণের দাগ, চোখের নিচের কালো দাগ, বলিরেখা ইত্যাদি দাগ দূর করতে সাহায্য করে।  

এটি ত্বকের কালো দাগ দূর করার পাশাপাশি ত্বকের উজ্জ্বলতা আরো বৃদ্ধি করতেও সাহায্য করে। এছাড়াও ত্বকে যে ব্রনের সমস্যাটি হয় সেটা দূর করতেও সাহায্য করে। আর এসব কারণে মূলত লেবু আমাদের জন্য ত্বকের জন্য অনেক উপকারী।

লেবু কি ত্বকের কালো দাগ দূর করতে সাহায্য করেঃ

লেবু আমাদের ত্বকের যেকোনো কালো দাগ খুব সহজেই দূর করে দিতে পারে। এমন কি এটি গবেষণায় ও জানা গেছে যে, লেবু ত্বকের যেকোনো ধরনের দাগ অনায়াসে দূর করতে পারে। লেবুতে থাকা পুষ্টিকর উপাদান গুলো ত্বকের কালো দাগ দূর করার জন্য অনেক ভালো কাজ করে। আর এ কারণেই মূলত লেবু ত্বকের কালো দাগ দূর করতে অনেক সাহায্য করে। 

আর গবেষণায় এই  লেবুর ব্যবহার অনেক ক্ষেত্রেই সফল হয়েছে। কারণ লেবু সত্যি ত্বকের কালো দাগ দূর করতে সাহায্য করে। যা অন্যান্য দামি প্রোডাক্টস ভালো করে করতে পারে না। আর এ লেবু অনায়াসে পুরনো পোলা দাগ থেকে শুরু করে যেকোন কালো দাগ খুব সহজে দূর করতে পারে।

ত্বকের কালো দাগ দূর করতে একেক জন একেক রকম ভাবে লেবুর ব্যবহার করে। আপনিও চাইলে আপনার ইচ্ছামত যে কোন উপাদান লেবুর রসের সাথে মিক্স করতে পারেন। আর অন্যান্য উপাদানের সাথে লেবুর রস মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করলে। 

ত্বকের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা একদম কমে যাবে। কারণ অনেকেরই লেবু ব্যবহারের ফলে ত্বকে জ্বালাপোড়া সমস্যা হয় । এছাড়া আরো বিভিন্ন ধরনের সমস্যা হতে পারে। আর এসব সমস্যার জন্য লেবু যে কোন উপাদানের সঙ্গে মিশিয়ে ব্যবহার করতে হবে। তাহলে মুখের ক্ষতি এড়িয়ে চলা যাবে।

লেবু ব্যবহারের ফলে অনেকেরই ত্বকের সমস্যা হয়, কিন্তু কেন?

ত্বক আমাদের কাছে অনেক মূল্যবান একটি জিনিস। তাই তোকে কোন জিনিস ব্যবহার করার আগে সে জিনিস সম্পর্কে ধারণা থাকা দরকার যে, তার কি কি উপকারিতা রয়েছে এবং কি কি ক্ষতিকারক দিক রয়েছে। তাহলে তোকে যে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা হয় এ ধরনের সমস্যা গুলো এড়ানো যাবে।

লেবুতে রয়েছে এসিটিক উপাদান। এটি মূলত আমাদের ত্বকের বিভিন্ন ধরনের কালো দাগ দূর করতে সাহায্য করে। আরও যেসব উপাদান রয়েছে সেগুলো ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে সাহায্য করে। কিন্তু অনেক সময় লেবুর রস ব্যবহারের ফলে, ত্বকে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। এখন এ প্রশ্নটি মনে জাগতে পারে যে, লেবু আমাদের ত্বকের জন্য উপকারী তাহলে এটি ক্ষতিকারক কিভাবে।

 আসলে এতে থাকা যে অ্যাসিটিক উপাদানটি রয়েছে, এটি এক একটি লেবুর ক্ষেত্রে একেকরকম পরিমাণে থাকে। এই এসিটি আমাদের ত্বকের জন্য অনেক উপকারী। কিন্তু এর মাত্রা যখন বৃদ্ধি পায় এটি আমাদের ত্বকের ক্ষতি করতে পারে। তাই এ ধরনের সমস্যা এড়াতে হলে লেবুর সরাসরি মুখে ব্যবহার করা যাবে না। 

কোন কিছুর সাথে মিক্স করে ব্যবহার করতে হবে। তাহলে এ ধরনের সমস্যা এড়ানো যাবে। এছাড়াও লেবু নিয়মিতভাবে মুখে ব্যবহার করা ভালো নয়। এক সপ্তাহে দুইবারের বেশি তোকে লেবুর রস ব্যবহার না করাই ভালো। কারণ শুধু লেবুর এসিডের মাত্রা বেড়ে যাওয়ার জন্য ত্বকের ক্ষতি হয় তা কিন্তু নয়। যদি নিয়মিত ভাবে আমরা এই লেবুর  ব্যবহার করি তখনও, ত্বকে এর ব্যবহারের মাত্রা বাড়ার ফলে ক্ষতি হতে পারে। 

পায়ের দাগ দূর করতে লেবুর রসের ব্যবহারঃ

ত্বকের যত্ন নিতে নিতে আমরা ভুলেই যাই পায়ের কথা।ত্বকের পাশাপাশি পায়ের যত্ন নিতে হয়। আমাদের জামার হাতার যে অংশটি ঢাকা থাকে সে অংশটি ফর্সা থাকে এবং যে অংশটি বাইরে থাকে সে অংশটি কালো হয়ে যায়। তেমনি ঘটে পায়ের ক্ষেত্রে। আমরা যখন পায়ে জুতা পরি। জুতায় ঢেকে যাওয়া অংশটুকু ফর্সা থাকে এবং বাকি অংশটুকু কালো হয়ে যায়। 

তাই ত্বকের পাশাপাশি পায়ের ও যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। নইলে পা অনেক কালো হয়ে যাবে। কিন্তু সব সময় তো আর পায়ের যত নেওয়া যায়না ত্বকের মত। তাহলে এমন এক যত্ন প্রয়োজন যে যত্ন অনেকদিন পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।

লেবুর রস যেমন ত্বকের কালো দাগ দূর করতে সাহায্য করে তেমনি পায়ের কালো দাগ দূর করতেও সাহায্য করে। আর এটি অনেকদিন পর্যন্ত কার্যকর থাকে। ফলে পাওয়া খুব সহজে কালো হয়ে যায় না। তাই পায়ের কালো দাগ দূর করতে লেবুর রস ব্যবহার করা যেতে পারে। কিন্তু এখন কথা হল কিভাবে ব্যবহার করলে পায়ের যত্ন বেশিদিন পর্যন্ত কার্যকর থাকবে। 

  • এর জন্য প্রয়োজন লেবুর রসের। এরপর এখানে শ্যামপুর কিছু অংশ দিতে হবে এবং যেকোনো ধরনের টুথপেস্ট দিতে হবে। এগুলো দেওয়ার পর হাফ চামচ হলুদের গুঁড়া দিয়ে ভালো করে মিক্স করে নিতে হবে। এরপর এটিকে পায়ে অথবা হাতেও ব্যবহার করা যাবে। যে স্থানে ব্যবহার করতে চান সেখানে ভালো করে এটি লাগিয়ে ম্যাসাজ করতে হবে। আপনারা চাইলে লেবুর খোসাটিও ব্যবহার করতে পারেন।
  • এ পেক দিয়ে তৈরি করার জন্য প্রথমে প্রয়োজন হবে লেবুর রসের, এরপর সেখানে এক চামচ চালের গুড়ো, এক চামচ চিনি, হাফ চামচ বেকিং সোডা এবং কিছু পরিমাণে টুথপেস্ট ব্যবহার করে সেখানে পানি দিতে হবে। এরপর এটিকে ভালো করে মিক্স করে পায়ে এপ্লাই করতে হবে। তাহলে এটি পায়ের কালো দাগ দূর করতে সাহায্য করবে।

ত্বকের যত্নে লেবুর রস কিভাবে ব্যবহার করতে হয়ঃ

লেবু আমাদের ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে অনেক সাহায্য করে। কিন্তু এই লঘুকে যদি আমরা ঠিকমতো ব্যবহার না করি, তাহলে এর উপকারিতা গুলো আমরা ঠিকমত পাব না। তাই কিভাবে ত্বকে লেবু ব্যবহার করতে হয় সেটিও জানা প্রয়োজন। 

কারণ ত্বক আমাদের কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি জিনিস। তাই ত্বকে আমরা যখন যা খুশি তাই ব্যবহার করতে পারব না। যে কোন জিনিস ব্যবহার করার আগে সেই জিনিস কিভাবে ব্যবহার করতে হয় এবং সেটি ব্যবহার করলে কেমন উপকার পাওয়া যাবে, সেগুলো আগে থেকে জানতে হবে।

তোকে সরাসরি ব্যবহার না করে কিছু জিনিসের সাথে মিক্স করে ত্বকে ব্যবহার করা যাবে। যেমনঃ আলু, আলুর রস, ময়দা, চালের আটা আরো বিভিন্ন ধরনের জিনিস রয়েছে যেগুলো লেবুর সাথে ব্যবহার করা যায়। 

লেবুর সঙ্গে যে মিশ্রণগুলো ব্যবহার করা হয় সেগুলোও আমাদের ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য অনেক উপকারী। আর এমনিতেও প্রাকৃতিক জিনিসে কোন ধরনের খারাপ কেমিক্যাল থাকে না, তাই এগুলো ত্বকের জন্য আরো বেশি উপকারী। তাহলে চলুন জেনে নিন লেবুর রস দিয়ে তৈরি কিছু ফেসপ্যাক।

  • এ ফেসপ্যাকটি তৈরি করার জন্য প্রয়োজন হবে এক টেবিল চামচ কাঁচা দুধ, এক চামচ মধু এবং এক চামচ লেবুর রসের। এরপর এগুলোকে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর এটিকে ত্বকে ব্যবহার করতে হবে।
  • সাধারণ ত্বক ময়লা থাকলে, ত্বকে বিভিন্ন ধরনের ব্রণের সমস্যা দেখা যায়। এ ছাড়া আরও বিভিন্ন কারণে ত্বকে ব্রণের সমস্যা হয়ে থাকে। কিন্তু এ লেবুতে থাকা এসিড টি ব্রণের সমস্যা দূর করতে অনেক সাহায্য করে। তাই এক চামচ মধুর সাথে লেবু মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করতে পারেন।এটি ব্রনের সমস্যা দূর করতে সাহায্য করবে।
  • এক চামচ বেসন নিয়ে, সেখানে সামান্য পরিমাণে হলুদের গুঁড়ো ব্যবহার করতে হবে। এরপর এক চামচ লেবুর রস দিয়ে মিশিয়ে ত্বকে ব্যবহার করলে। ত্বকের ময়লা দূর করতে অনেক সাহায্য করে এবং ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতেও সাহায্য করে।

শেষ কথা

প্রিয় পাঠক আজকে আমরা এই আর্টিকেলের শেষ পর্যায়ে চলে এসেছি। আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটি আপনার অনেক উপকারী লাগবে। যদি আজকের এই আর্টিকেল থেকে আপনি কোনভাবে উপকৃত হন তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url