চোখের রোগের লক্ষণ - চোখের রোগ ও তার প্রতিকার

 প্রিয় পাঠক আপনি যদি চোখের রোগের লক্ষণ - চোখের রোগ ও তার প্রতিকার সম্পর্কে জানতে চান তবে এই পর্বটি আপনার জন্য। এই পর্বের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন চোখের রোগের লক্ষণ ও চোখের রোগের প্রতিকার সম্পর্কে। আমাদের চোখে অনেক ধরনের সমস্যা হতে পারে চোখ ওঠা চোখের আঞ্জনি অথবা ভাইরাসজনিত সমস্যা হয়ে থাকে। তাই চলুন এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেয়া যাক চোখের রোগের লক্ষণ - চোখের রোগ ও তার প্রতিকার সম্পর্কে।

চোখের রোগের লক্ষণ - চোখের রোগ ও তার প্রতিকার
অনেক সময় চোখের ভাইরাস সহ বিভিন্ন ধরনের রোগ হয়ে থাকে। এই রোগ গুলো লক্ষণ ও প্রতিকার সম্পর্কে যদি আপনি জানতে চান তবে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। এই পর্বে আলোচনা করা হবে চোখের রোগের বিভিন্ন লক্ষণ ও প্রতিকার গুলো সম্পর্কে। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক চোখের রোগের লক্ষণ - চোখের রোগ ও তার প্রতিকার।

চোখের রোগ সমূহ

অনেকের চোখের রোগ সম্পর্কে জানে না। চোখের বিভিন্ন রোগ হয়ে থাকে। যেগুলো পরবর্তীতে চোখের জন্য অনেক ক্ষতিকারক হয়ে যায়। আপনি যদি চোখের রোগ সমূহ সম্পর্কে সঠিক ধারণা নিতে চান তবে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। চলুন এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক চোখের রোগ সমূহ সম্পর্কে বিস্তারিত। আপনার চোখ যদি লাল হয়ে যায় তবে শিওর হবেন যে কোন রোগের জন্য চোখ লাল হয়েছে। যেসব কারণে অথবা যেসব রোগের কারণে চোখ লাল হতে পারে সেগুলো নিচে দেওয়া হলঃকনজিংটিভাইসটিস, কর্নিয়া বা মনিতে ঘা, এলার্জি, গ্লুকোমা রোগ ইউভাইটিস থেকে চোখ লাল হতে পারে। মানুষের চোখে আরো যে সমস্যাগুলো হতে পারে সেগুলো হলোঃ
  • দুর্বোধ্য দৃষ্টি বা হাইপারমেট্রোপিয়া
  • নিকট বদ্ধ দৃষ্টি বা মায়োপিয়া
  • বর্ণান্ধ
  • রাতকানা
  • সানি বা ক্যাটারাক্ট
  • গ্লুকোমা
  • বিশেষ ধরনের চোখের গঠন যেমন(একত্রে দৃষ্টি, দ্বিনেত্র দৃষ্টি ও পুঞ্জাক্ষে)

চোখের রোগ মুক্তির দোয়া

আপনি যদি চোখের রোগ মুক্তির দোয়া জানতে চান তবে এই পর্বটি আপনার জন্য। এই পর্বে আমরা আলোচনা করব চোখ উঠলে বা চোখের বিভিন্ন রোগ হলে এর থেকে মুক্তি পাওয়ার দোয়া অথবা আল্লাহ তাআলার কাছে কিভাবে দোয়া করলে আল্লাহ তাআলা আমাদের রোগ থেকে মুক্তি দেবেন সেই সম্পর্কে। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক চোখের রোগ মুক্তির দোয়া সম্পর্কে। কোন কারনে আপনার যদি চোখের ব্যথা অনুভূতি হয় তবে কুরআনুল কারিমের এই আয়াতটি পড়ার মাধ্যমে আপনি আপনার চোখের ব্যথা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। এই আয়াতটি হল সূরা ক্বফ এর ২২ নাম্বার আয়াত-
  • উচ্চারণঃ লাক্বাদ কুংতা ফি গাফলাতিম মিন হাজা ফাকাশাফনা আংকা গিত্বাআকা ফাবাচারুকাল ইয়াওমা হাদিদ।
  • আমলঃ যে ব্যক্তি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের পর সূরা কফ এর ২২ নাম্বার আয়াত ৩ বার করে পড়বে তার চোখের ব্যথা দূর হয়ে যাবে।
আল্লাহতালা মানুষকে অনেক যত্ন করে সৃষ্টি করেছেন। আমাদের শরীরের প্রত্যেকটি অঙ্গ-প্রত্যঙ্গই আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাই এগুলোকে যথাযথ সুস্থ রাখতে হবে। আপনার যদি দৃষ্টিশক্তির ভালো রাখতে চান তবে আল্লাহ তাআলার কাছে এই দোয়াটি করবেন। দোয়াটি হলঃ
  • উচ্চারণঃ আল্লাহুম্মা আ-ফিনি বাদানি,আল্লাহুম্মা আ - ফিনি ফি সাম ই,আল্লাহুম্মা আ-ফিনি ফি বাসারি,লা-ইলাহা ইল্লা আনতা।
  • অর্থঃ হে আল্লাহ! আমার দেহকে সুস্থ রাখুন। হে আল্লাহ আমাকে সুস্থ রাখুন আমার শ্রবণ ইন্দ্রিয়। হে আল্লাহ আমাকে সুস্থ রাখুন আমার দৃষ্টি শক্তিতে। আপনি ছাড়া কোন উপাস্য নেই।

চোখের রোগের লক্ষণ

আপনি যদি চোখের রোগের লক্ষণগুলো সম্পর্কে সঠিক ধারণা নিতে চান তবেই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। এই পর্বটি পড়ার মাধ্যমে আপনি চোখের রোগের লক্ষণ গুলো কি কি সেগুলো সম্পর্কে সঠিক ধারণা পাবেন। চোখের বিভিন্ন অংশের সাথে সংযুক্ত সমস্যা গুলোকে একত্রে চোখের রোগ বলে। চোখের বিভিন্ন ধরনের রোগ হয়ে থাকে। যে রোগগুলো হলে এবং চিকিৎসা নেয়া নেওয়ার ফলে আপনার দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে ফেলতে পারেন। তাই অবশ্যই এই সমস্যাগুলো হলে যত দ্রুত সম্ভব চিকিৎসা নিতে হবে। যেগুলো আপনি লক্ষণ এবং উপসর্গ দেখেই বুঝে নিতে পারবেন যে আপনার চোখের সমস্যা হয়েছে। চোখের রোগের লক্ষণ এবং উপসর্গ গুলো নিচে দেওয়া হলঃ
  • লাল হয়ে যাওয়া এবং চোখ ফুলে যাওয়া
  • চোখ চুলকানি ও চোখ দিয়ে পানি বের হওয়া
  • চোখে কড়কড় করা ও অস্বস্তি বোধ করা
  • দৃষ্টি শক্তি দুর্বল হয়ে যাওয়া
  • চোখের চারপাশে এবং চোখের মধ্যে ব্যথা অনুভূতি হওয়া
  • চোখে ঝাপসা, অস্পষ্ট এবং কোন কিছু দুটো করে দেখা
  • কোন কিছু দাগ যুক্ত দেখা যেটা খুবই অস্বস্তিকর
  • চোখের ভেতরে চোখের তারায় রঙিন অংশটুকু রঙের পরিবর্তন হয়ে যাওয়া
  • আলোতে আসলে সংবেদনশীলতা
  • দৃষ্টি শক্তি হারানো
  • চোখ বন্ধ করার সময় পর্দা সংবিদশীল হওয়া

চোখের রোগের নাম

আপনি নিশ্চয়ই চোখের রোগের নাম জানতে চাচ্ছেন? হ্যাঁ আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। এই পর্বের মাধ্যমে আপনি চোখের রোগের নামগুলো জানতে পারবেন। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক চোখের বিভিন্ন রোগের নাম গুলো।
  • কনজিংটিভাইসটিস
  • কর্নিয়া বা মনিতে ঘা
  • এলার্জি
  • গ্লুকোমা রোগ
  • ইউভাইটিস
  • দুর্বোধ্য দৃষ্টি বা হাইপারমেট্রোপিয়া
  • নিকট বদ্ধ দৃষ্টি বা মায়োপিয়া
  • বর্ণান্ধ
  • রাতকানা
  • সানি বা ক্যাটারাক্ট
  • গ্লুকোমা
  • বিশেষ ধরনের চোখের গঠন যেমন(একত্রে দৃষ্টি, দ্বিনেত্র দৃষ্টি ও পুঞ্জাক্ষে)

চোখের রোগের চিকিৎসা

প্রিয় পাঠক আপনি যদি চোখের চিকিৎসা সম্পর্কে জানতে চান তবে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। এই পর্বের মাধ্যমে আমরা আজকে আলোচনা করব চোখের বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা কিভাবে করা যায় এবং চোখের রোগ কিভাবে ভালো করা যায় সেই সম্পর্কে। প্রাথমিক পর্যায়ে চোখের রোগের চিকিৎসা গুলো নিচে আলোচনা করা হলোঃ
  • বছরে একবার হলেও আপনার চোখের পরীক্ষা করা উচিত। কারণ চোখের পরীক্ষার মাধ্যমে চোখের ভেতরের রোগের লক্ষণ এবং উপসর্গ নির্ণয় করা যায়।
  • চশমা ব্যবহার করতে হবে। কন্টাক্ট লেন্স বা লেজার পদ্ধতির মাধ্যমে দৃষ্টি শক্তির চিকিৎসা করানো যেতে পারে।
  • আও মেডিকেটেট চোখের ড্রপ বা চোখের জেল শুকানো চোখকে তৈলাক্ত করে
  • মেডিকেটেড চোখের ড্রপ এলার্জি চোখের সংক্রমণ ভালো করতে সাহায্য করে।
  • ডাইবেটিক রেটিনোপ্যাথির জন্য লেজারের চিকিৎসা
  • সানি এবং রেটিনার বিচ্যুতিতে অষ্টপাচারের প্রয়োজন
  • শুকনো চোখের চিকিৎসার জন্য ওমেগা 3 ফেটি অ্যাসিড এবং পুষ্টিকর উপাদান খেতে হবে।

শেষ কথা

উপরোক্ত আলোচনা সাপেক্ষে এতক্ষণে নিশ্চয় চোখের রোগের লক্ষণ - চোখের রোগ ও তার প্রতিকার সম্পর্কে সঠিক ধারণা পেয়েছেন। আপনার যদি এই পর্বটি সম্পর্কে কোন মতামত থেকে থাকে তবে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন এবং আজকের পর্বটি যদি আপনার ভালো লেগে থাকে তবে অবশ্যই বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন ধন্যবাদ।


পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url