মর্টগেজ লোন কোন ব্যাংক দেয় - সোনালী ব্যাংক ব্যবসায়ীক লোন

প্রিয় পাঠক আপনি যদি মর্টগেজ লোন কোন ব্যাংক দেয় জানতে চান তবে এই পর্বটি আপনার জন্য। এই পর্বের মাধ্যমে আমরা আজকে আলোচনা করব মর্টগেজ লোন কোন ব্যাংক দিয়ে থাকে সেই সম্পর্কে।মর্টগেজ লোন কোন ব্যাংক দেয় জানতে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক মর্টগেজ লোন কোন ব্যাংক দেয়।
মর্টগেজ লোন কোন ব্যাংক দেয়
আপনি যদি মর্টগেজ লোন সম্পর্কে জানতে চান তবে এই পর্বটি আপনার জন্য। এই পর্বের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন এই লোন কিভাবে নাই এবং কোন ব্যাংক দেয় সেই সম্পর্কে। তাহলে চলুন আজকের এই পর্যায়ে জেনে নেওয়া যাক মর্টগেজ লোন কোন ব্যাংক দেয়।

সার্টিফিকেট জমা দিয়ে লোন

আপনি যদি সার্টিফিকেট জমা দিয়ে লোন নেওয়ার পদ্ধতি সম্পর্কে জানতে চান তবে এই পর্বটি শুধুমাত্র আপনার জন্য। কেননা আজকের এই পর্বের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন কিভাবে সার্টিফিকেট জমা দিয়ে লোন নেওয়া যায় এবং কোন কোন ব্যাংক লোন দিয়ে থাকে সেই সম্পর্কে। তাহলে চলুন আজকের এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক সার্টিফিকেট জমা দিয়ে লোন নেওয়ার পদ্ধতি সম্পর্কে। 

যারা পড়াশোনা শেষ করে উদ্যোক্তা হতে চাচ্ছে তাদের জন্য বিশাল সুযোগ করে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে একজন উদ্যোক্তা তার শিক্ষাগত যোগ্যতা মূল সার্টিফিকেট ও অভিজ্ঞতা জমা দিয়ে এক কোটি টাকা পর্যন্ত লোন নিতে পারবেন।
স্টাট আপ লোন নেওয়ার জন্য একজন ব্যক্তিকে অবশ্যই নতুন উদ্যোক্তা হতে হবে। শিক্ষিত উদ্যোক্তাদের অবশ্যই শিক্ষাগত যোগ্যতার মূল জমা দিতে হবে এছাড়াও আপনি উদ্যোক্তার বিষয়ে যদি অভিজ্ঞতা থাকে তাহলে অভিজ্ঞ সার্টিফিকেট প্রদান করতে হবে। 

বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে লোন নেওয়ার জন্য অবশ্যই বয়স হতে হবে ২১ থেকে ৪৫ বছরের মধ্যে। এলোনটি নেওয়ার জন্য ব্যক্তিগত গ্যারান্টি ও শিক্ষাগত সনদ জমা দিতে হবে। এই ব্যাংক লোনটি নেওয়ার জন্য আপনাকে বাংলাদেশ ব্যাংকের শাখারী সরাসরি যোগাযোগ করতে হবে। সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের মধ্যে এই লোনের টাকা পরিশোধ করতে হবে।

সুদবিহীন লোন

আপনি যদি সুদবিহীন লোন এর কথা চিন্তা করে থাকেন তবে এই পর্বটি আপনার জন্য। কেননা এই পর্বের মাধ্যমে আপনি সুদবিহীন কিভাবে লোন নিবেন সেই সম্পর্কে আমরা আলোচনা করব। অনেকেই রয়েছে যারা সুদবিহীন ব্যাংক থেকে লোন নেওয়ার কথা চিন্তা করে থাকে। তাই চলুন আজকের এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক সুদবিহীন লোন নেওয়ার নিয়ম সম্পর্কে।
বাংলাদেশ এমন কোন ব্যাংকের উদ্বোধন হয়নি যে ব্যাংক কোন ধরনের সুদ ছাড়াই আপনাকে লোন প্রদান করবে। তবে আপনি যদি সুদবিহীন লোন নেওয়ার কথা চিন্তা করে থাকেন তাহলে আপনি কারো কাছ থেকে টাকা ধার নিতে পারেন এবং নির্দিষ্ট দিনে ধার শোধ করে দিতে হবে। তবে এখানে সুদের বিষয়টি খোলামেলা কথা বলে নিতে হবে। 

নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকার বাহিরে কোন টাকা যদি প্লাস মাইনাস হয়ে থাকে তাহলে সেটি সুদের মধ্যে পড়বে। তাই আপনি সুদ বিহীন লোন নেওয়ার কথা চিন্তা করলে কারো কাছ থেকে ধার নিতে পারেন।

সোনালী ব্যাংক ব্যবসায়ীক লোন

আপনি নিশ্চয়ই সোনালী ব্যাংক ব্যবসায়ীক লোন নেওয়ার কথা চিন্তা করছেন। হ্যাঁ আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। আজকের এই পর্বের মাধ্যমে আমরা আলোচনা করব সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে কিভাবে ব্যবসায়ী লোন নেওয়া যায় সেই সম্পর্কে। সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে ব্যবসায়িক লোন নেওয়ার নিয়ম সম্পর্কে জানতে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। 

তাহলে চলুন আজকের এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক সোনালী ব্যাংক ব্যবসায়ীক লোন নেওয়ার পদ্ধতি সম্পর্কে। সোনালী ব্যাংক থেকে ব্যবসায়িক লোন নেওয়ার জন্য আপনার যেসব যোগ্যতা থাকা প্রয়োজন সেগুলো নিচে দেওয়া হলঃ
  1. সোনালী ব্যাংকে আপনার একটি একাউন্ট থাকতে হবে
  2. লোন গ্রহীতার বয়স সর্বনিম্ন ১৮ বছরের উপরে থাকতে হবে
  3. আবেদনকারীকে অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে
  4. যে পরিমাণ টাকা লোন নিতে চাচ্ছেন তা পরিশোধ করার মত সক্ষমতা থাকতে হবে।
  5. ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি এবং পাসপোর্ট সাইজের সদ্য তোলার রঙিন ছবি।
  6. ব্যাংক থেকে আপনাকে যেসব ডকুমেন্টসের কথা বলবে সেগুলো অবশ্যই থাকতে হবে।
ব্যক্তিগত সকল ধরনের কাজের জন্য সোনালী ব্যাংক আপনাকে পার্সোনাল লোন এর সুযোগ করে দিয়েছে। আপনি এই পার্সোনাল লোন নিয়ে বিভিন্ন ব্যবসাতে কাজে লাগাতে পারেন। সোনালী ব্যাংকের বেসায়িক লোন নেওয়ার জন্য আপনাকে অবশ্যই নিকটস্থ শাখায় যোগাযোগ করতে হবে।

ব্যাংক ঋণ পাওয়ার উপায়

আপনি নিশ্চয়ই ব্যাংক ঋণ পাওয়ার উপায় সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন? হ্যাঁ আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। আজকের এই পর্বের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন কিভাবে ব্যাংক থেকে ঋণ পাওয়া যায় সেই সম্পর্কে। ব্যাংক থেকে ঋণ পাওয়ার সকল উপায় জানতে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে চলুন এই পর্বে জেনে নেওয়া যাক ব্যাংক ঋণ পাওয়ার উপায় সম্পর্কে। ব্যাংক থেকে ঋণ পাওয়ার জন্য আপনার যেসব নথি অবশ্যই থাকা আবশ্যক।
  1. নিয়ন্ত্রক সংস্থার বাধ্যবাধকতা
  2. ঋণ পরিশোধের সক্ষমতা যাচাই
  3. ঋণের পরিমাণ নির্ধারণের জন্য আপনার যোগ্যতা
  4. ঋণ আদায়ের প্রয়োজনে আইনে পদক্ষেপ গ্রহণ নিতে পারবে।
এ সকল কিছু মাথায় রেখে আপনাকে ঋণ প্রদান করা হবে। তবে কিছু নিয়ম থাকতে পারে। আপনি যে ব্যাংকের মাধ্যমে ঋণ নিতে যাচ্ছেন সেই ব্যাংকের শর্তসাপেক্ষে অবশ্যই আপনাকে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

গরুর খামার করতে ব্যাংক লোন

আপনি নিশ্চয়ই গরুর খামার করতে ব্যাংক লোন নেওয়ার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন? হ্যাঁ আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। এই পর্বের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন গরুর খামার করার জন্য কিভাবে ব্যাংক থেকে লোন নেওয়া যায় সেই সম্পর্কে। গরুর খামার করার জন্য কিভাবে ব্যাংক থেকে লোন নিবেন জানতে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে চলুন এই পর্বে জেনে নেওয়া যাক গরুর খামার করতে ব্যাংক লোন পদ্ধতি সম্পর্কে। গরুর খামার করার জন্য আপনি যেসব ব্যাংক থেকে লোন নিতে পারবেন তা হলঃ
  1. সোনালী ব্যাংক কৃষি উদ্যোক্তা লোন
  2. কর্মসংস্থান ব্যাংক কৃষি উদ্যোক্তা লোন
  3. ব্র্যাক ব্যাংক কৃষি উদ্যোক্তা লোন
  4. ট্রাস্ট ব্যাংক
  5. অগ্রণী ব্যাংক
  6. প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক
যেসব প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আপনার থাকা আবশ্যক
  1. সার্টিফিকেটঃ গবাদি পশু পালন করার জন্য অবশ্যই আপনাকে একটি ট্রেনিং নিতে হবে। আপনি চাইলে যুব উন্নয়ন থেকে ট্রেনিং নিতে পারেন। সেখান থেকে যে সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে সেই সার্টিফিকেট থাকতে হবে।
  2. ট্রেড লাইসেন্স
  3. জাতীয় পরিচয় পত্র
  4. টিন সার্টিফিকেট
  5. একজন গ্যারান্টি আকার
  6. গরু রাখার শেড

মর্টগেজ লোন কোন ব্যাংক দেয়

আপনি নিশ্চয় মর্টগেজ লোন কোন ব্যাংক দেয় জানতে চাচ্ছেন। হ্যাঁ আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। এই পর্বের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন মর্টগেজ লোন কোন ব্যাংক গুলো দেয় সেই সম্পর্কে। মর্টগেজ লোন কোন ব্যাংকগুলো দেয় জানতে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক মর্টগেজ লোন কোন ব্যাংক দেয়।

মর্টগেজ লোন বলতে বোঝায় স্থায়ী সম্পদ বন্ধক রেখে লোন নেওয়া। আপনি আপনার স্থায়ী সম্পদ বন্ধক রেখে যেকোনো ব্যাংকের মাধ্যমে লোন নিতে পারবেন। এই লোনের সুবিধা সকল ব্যাংকি দিয়ে থাকে। তবে অবশ্যই আপনাকে বিবেচনা করতে হবে কোন ব্যাংকের মাধ্যমে নিলে আপনার সুবিধা বেশি পাওয়া যাবে। আপনি মোটামুটি সরকারি বেসরকারি এবং স্বায়ত্তশাসিত সব ব্যাংকের মাধ্যমেই এই লোনটি নিতে পারবেন।

কোন কোন ব্যাংক প্রবাসী লোন দেয়

আপনি নিশ্চয়ই কোন কোন ব্যাংক প্রবাসী লোন দেয় জানতে চাচ্ছেন? হ্যাঁ আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। আজকের এই পর্বের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন কোন ব্যাংকগুলো প্রবাসী ঋণ দিয়ে থাকে সেই সম্পর্কে। কোন ব্যাংকগুলো প্রবাসী লোন দেয় জানতে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে চলুন আজকের এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক কোন কোন ব্যাংক প্রবাসী লোন দেয়।

মোটামুটি আপনি প্রায় সব ব্যাংকের মাধ্যমে প্রবাসী লোন নিতে পারবেন। কিন্তু আপনার জন্য সবথেকে সহজ হবে আপনার নিকটস্থ প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক থেকে প্রবাসী লোন নেওয়া। আপনি যদি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক থেকে প্রবাসীর লোন দেন তাহলে আপনার অনেক সুবিধা পাওয়া যাবে। তাই প্রবাসী লোন নেওয়ার জন্য আপনি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক থেকে লোন নিতে পারেন।

শেষ কথা

উপরোক্ত আলোচনা সাপেক্ষে এতক্ষণে নিশ্চয় মর্টগেজ লোন কোন ব্যাংক দেয় জানতে পেরেছেন। আপনার যদি এই পর্বটি সম্পর্কে কোন মতামত থেকে থাকে তবে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন এবং আজকের পর্বটি যদি আপনার ভালো লেগে থাকে তবে অবশ্যই বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন।
পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url